সুবর্ণরৈখিক ভাষার প্রথম সাহিত্য পত্রিকা – ‘বাঁহুকী’

সুবর্ণরৈখিক ভাষার প্রথম সাহিত্য পত্রিকা - ‘বাঁহুকী’

ঝাড়গ্রাম জেলার গোপীবল্লভপুরে  প্রকাশিত হলো সুবর্ণরৈখিক ভাষায় লেখা প্রথম সাহিত্য পত্রিকা ‘বাঁহুকী’। গোপীবল্লভপুরের সুবর্ণরেখা মহাবিদ্যালয়ের নিকটবর্তী বর্গীডাঙ্গার কফি হাউস থেকে প্রকাশিত হলো এই পত্রিকা।  ‘বাঁহুকী’ সুবর্ণরৈখিক ভাষায় লেখা প্রথম সাহিত্য পত্রিকা। “যে সুবর্ণরৈখিক ভাষা দীর্ঘদিন অবহেলিত ছিল বা অবহেলিত আছে। হয়ত কোথাও কোথাও এই বিছিন্ন ভাষা নিয়ে চর্চা এবং কাব্যগ্রন্থ বেরিয়েছে। কিন্তু, কোনো সবুজ পত্রিকা ছিল না তাই আমরা ভয়েস অফ হিউম্যেনিটির তরফ থেকে উদ্যোগ নিই, যে সুবর্ণরৈখিক ভাষায় একটা ত্রৈমাসিক পত্রিকা প্রকাশ করবো যেটা আমাদের মাটির ভাষা, যে ভাষায় আমাদের সুবর্ণরেখা নদীর দুই পারের মানুষ কথা বলে। সেই প্রচেষ্টা কে আমরা সার্থক করতে পেরেছি সবাই মিলে, এলাকাবাসী, আমরা এবং এতদ অঞ্চলের সমস্ত লেখক-লেখিকার লেখা তুলে ধরতে পেরে আমরা সবাই গর্ব অনুভব করছি।” – আনিমেশ সিংহ, সম্পাদক ।

সুবর্ণরৈখিক ভাষাকে সবার সামনে তুলে ধরাই হচ্ছে এই পত্রিকার মূল লক্ষ্য। এই পত্রিকার প্রচ্ছদে রয়েছে প্রায় আড়াই থেকে তিনশো বছরের পুরনো গিলাকাটিয়া মন্দিরের ছবি, যেটি  শিল্পী সৌম্যজিত দাস  তাঁর তুলির টানে পত্রিকার প্রচ্ছদে তুলে ধরেছেন। অন্যদিকে,পত্রিকার বিপরীত দিকে রয়েছে বাঁহুক কাঁধে একজন দইওয়ালার ছবি। যা তাঁর মুঠোফোনে অসাধারন নিপুনতার সাথে তুলে ধরেছেন দিপু মিশ্র। এইসব নিয়ে প্রকাশিত হলো সম্পাদক অনিমেষ সিংহ এবং প্রকাশক রাকেশ জানার প্রথম ত্রৈমাসিক পত্রিকা ‘বাঁহুকী’।

Voice of Humanity-এক অন্যতম সদস্য দেবপ্রতিম পট্টনায়ক বলেছেন- “এই পত্রিকা ছোটো পত্রিকা, হয়তো ছোটো বলেই একে বাঁচিয়ে রাখাটা একটু কঠিন। তবে হাতে হাত আর কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চললে সবই সম্ভব।  কিছু মুষ্টিমেয় লোকের চেষ্টায় এই পত্রিকা প্রকাশ পেলেও একে বাঁচিয়ে রাখার দায়ীত্ব আমাদের সবার। এই বই পড়ুন, এই বই পড়ান। ভালো লাগবে সবার।” 

Admin

Gopiballavpur is a village, with a police station, in Gopiballavpur I Block in Jhargram subdivision of Jhargram district of West Bengal, India. The town is on the banks of the Subarnarekha River near the Jharkhand and Orissa borders. An Ecopark has been newly constructed in the town by the bank of the river Subarnarekha to attract people.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *